ডাটা এন্ট্রি ফ্রিল্যান্সিং এর ভবিষ্যৎ কেমন? সম্পূর্ণ নির্দেশিকা Complete Guide 2024

ডাটা এন্ট্রি ফ্রিল্যান্সিং

ডাটা এন্ট্রি ফ্রিল্যান্সিং করে আপনি সাবলম্বী হতে পারবেন হান্ড্রেট পার্সেন্ট। কিন্তু নিজেকে সেইভাবে পরিচালিত করতে হবে। 

মানুষের এখন একমাত্র চাওয়া ও পাওয়া হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং করে কিভাবে ইনকাম করা যায়। এবং কিভাবে সাবলম্বী হওয়া যায়। 

আজকে আমরা ও ডাটা এন্ট্রি ফ্রিল্যান্সিং করে কিভাবে আপনি পরনির্ভরশীলতা থেকে বাঁচতে পারবেন সেই সম্পর্কে আলোচনা করবো । বা ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করবো।  

আপনি হয়ত অনেকের কাছে শুনেছেন বা অনলাইন থেকে বা সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্লাটফর্ম থেকে জেনেছেন যে কিভাবে ডাটা এন্ট্রি ফ্রিল্যান্সিং করা যায়।

তাই আপনি এই নিবন্ধে এসেছেন। আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন বলে আমি মনে করি ।

 সাথেই থাকুন। বলতে বলতে অনেকক্ষন পথ আমরা হাটবো। 

ডাটা এন্ট্রি ফ্রিল্যান্সিং কি?

যারা এই অনলাইন জগতে ফ্রিল্যান্সিং করতে এসে এখনো জানেন না যে ডাটা এন্ট্রি কি।

তাদের উদ্দেশ্যে বলা। আসলে ডাটা এন্ট্রি হলো কোনো ডাটাকে যেকোন জায়গায় অন্তর্ভুক্ত করা বা সংগ্রহ করা বা সংরক্ষিত করা এই সব কিছুকে ডাটা এন্ট্রি বলে। 

আরো বিশদভাবে বললে বলা যায় আপনার হাতে থাকা কম্পিউটারের কীবোর্ড , মাউস দিয়ে কিংবা ভয়েসের মাধ্যমে কোনো তথ্যকে ইনপুট দেওয়ার নামই হলো ডাটা এন্ট্রি। 

এবার এই কাজগুলি করে ক্লাইন্ট কাছ থেকে অর্থ উপার্জন করাকে ফ্রিল্যান্সিং বলা হয়।

যেহেতু এই কাজ গুলি করতে আপনার কারো কাছে নির্ভরশীল হতে হয় না। কারণ এই কাজগুলি এখন অনলাইনে সচরাচর পাওয়া যায়।

আত্মনির্ভরশীলতার কাজ তাই দেখে ফ্রিল্যান্সিং বলা হয়। 

ডাটা এন্ট্রি  ফ্রিল্যান্সিং কাজগুলি কি কি 

ডাটা এন্ট্রির স্পেসিকেলি একদরনের কাজকে বুজায় না। অনেকধরনের কাজকে বুজায়। যেমন 

  • টাইপিং করা 
  • ফর্ম ফিলাপ করা 
  • কপি পেস্ট 
  • ক্যাপচা এন্ট্রি 
  • ভিবিন্ন রকম এক্সেলের কাজ  
  • ডাটা কারেকশান করা
  • ডাটা এডিটিং
  • ফরমেটিং 
  • ক্যাপশন তৈরী 

উপরের বর্ণিত সব কিছু ছাড়া ও আরো প্রায় পঞ্চাশটি পর্যন্ত ডাটা এন্ট্রি জব রয়েছে।

এবং এইগুলি সব কাজ আপনি বাংলাদেশের একজায়গায় বসে ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে আয় করতে পারবেন। 

এইগুলির চাহিদা অনেক । আবার আপনি এই ডাটা এন্ট্রির কাজগুলি অনলাইনে অনেক মার্কেটপ্লেসের মাধ্যমে বা রিমোর্ট জব হিসেবে ও করতে পারবেন। ঘন্টা বেসিসে।  

ফ্রিল্যান্সিং এ ডাটা এন্ট্রি কিভাবে শুরু করব 

আমাদের মনে সবসময় একটি প্রশ্ন থাকে যে ফ্রিল্যান্সিং করে অর্থ উপার্জন করবো  কিন্তু ,আমি ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ কিভাবে শুরু করবো?

এই বিষয়ে আমার একটি কন্টেন্ট আছে বিশদ ভাবে, সেখানে থাকে ঘুরে আস্তে পারেন

বিশেষ করে এই ডাটা এন্ট্রি কে ফ্রিল্যান্সিংয়ের প্রাথমিক পর্যায় ধরা যায়।

কিভাবে শুরু করবো ? কোথায় থেকে শিখব ? এই সব প্রশ্ন। 

দেখুন আমরা এই ডাটা এন্ট্রির অনেক কাজ কিন্তু দেখেছি বা একটু আধটু করেছি  হয়ত আমরা সেটা বুজতে পারি না।

যেমন আপনি অনেক কিছু অনলাইন থেকে তথ্য সংগ্রহ করেছেন। 

আবার অনেক কিছু নিজে কপি পেস্ট করেছেন নিজের জন্যে।

এই সমস্ত কিছু গুছিয়ে একটা কাজকে টিক ঠাক মতো ওপরের জন্যে করাকে ডাটা এন্ট্রির কাজ বলে। 

কিভাবে আপনি শুরু করবেন যেমন আপনি অনলাইনে অনেক ফ্রি মেথড পাবেন।

যেমন ফেইসবুক, ইউটিউব বা অনলাইনে অনেক রকম পিডিএফ আকারে বই পাবেন।

সেইগুলি দিয়ে আপনি আগে শুরু করেন। 

ইউটিউবে আবার অনেকে এই সম্পর্কে সিরিয়াল কোর্স করে সম্পূর্ণ ফ্রি ভাবে।

এইগুলি দিয়ে আগে ট্রাই করেন। তার পর আপনি আরো একটু অগ্রসর হওয়ার জন্যে চাইলে পেইড কোর্স করতে পারেন। 

এখন বর্তমানে অনেক অনলাইন ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে। সেখান থেকে আপনি কোর্স এনরোল করতে পারবেন। এইভাবে আপনি অগ্রসর হতে পারেন। এইভাবে আপনাকে ডাটা এন্ট্রি ফ্রিল্যান্সিং কোর্স শুরু করতে হবে।  

ডাটা এন্ট্রি কাজ করে মাসে কত টাকা আয় করা যায়?

এই সেক্টরে কত টাকা ইনকাম করা যায় তার চেয়ে বুজতে হবে আপনি কত ভাল কাজ জানেন। ডাটা এন্ট্রির কাজগুলি করতে আপনার কতটা দক্ষতা রয়েছে। কাজের প্রকারভেদ অনুযায়ী টাকা ইনকাম করা যাবে। 

আপনি যদি একজন দক্ষ ডাটা এন্ট্রি ফ্রিল্যান্সার হন তাহলে আপনি কমপক্ষে মাসে (পঞ্চাশ )৫০০০০/= থেকে ৮০০০০/= (আশি) হাজার পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন বা তার ও বেশি ইনকাম করতে পারবেন।  

আবার যারা মিডেল অবস্থায় আছে তারা ৪০০০০/= (চল্লিশ)থেকে ৫০০০০/=(পঞ্চাশ) হাজার টাকা পর্যন্ত ইনকাম করে থাকে। আর যত বেশি অনলাইনে আপনি পরিচিতি লাভ করবেন ততবেশি আপনার ইনকাম বৃদ্বি হতে থাকবে।

এখন কিভাবে আপনি পরিচিতি লাভ করবেন ? সেই জন্যে আপনাকে ভালো একটা আউটপুট দিতে হবে এবং তার জন্যে স্কিল ডেভেলপ করতে হবে। 

আরও পড়ুন ঃ

কিভাবে ব্লগিং শুরু করবো ? এ টু জেট গাইড

এফিলিয়েট মার্কেটিং কেন করবো এবং কেন এই সেক্টর খুব জনপ্রিয়

ডাটা এন্ট্রি কাজের ভবিষ্যৎ কেমন 

এখন বর্তমানে এ আই এর খুব বেশি চাহিদা হাওয়াই মানুষের ভিতরে এই প্রশ্ন আসছে খুব।

তাই মানুষের এখন প্রশ্ন ভবিষ্যৎ কেমন হবে এই ডাটা এন্ট্রি কাজ গুলি নিয়ে। 

আমি বলি কি ডাটা এন্ট্রির কাজ যত সহজ হোক না কেন বা এআই যত এই ডাটা এন্ট্রির কাজ করুক না কেন, ডাটা এন্ট্রির কাজগুলির কখনো কমতি হবে না। তার কারণ হচ্ছে এআই হচ্ছে একটি রোবট।

আর এই রোবট মানুষেই তৈরী করেছে।

মানুষের ব্যক্তিগত চিন্তা চেতনা রোবটের মধ্যে কখনো হবে না। তাই ডাটা এন্ট্রি ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ ভবিষ্যতে কখনো কমে যাওয়ার সম্ভবনা নেই। 

আরো দিন দিন এর চাহিদা বাড়বে বই কমবে না।

তবে আপনাকে নিত্য নতুন কাজগুলি একটু মনোযোগ দিয়ে আয়ত্ব করতে হবে এই

। মানুষের মেধাশক্তি কখনো একজন রোবট করতে পারে না। বা এআই করতে পারেনা। 

তাই ভবিষ্যতে  এই ফ্রিল্যান্সিং সেক্টরে শুধু ডাটা এন্ট্রি কেন সব কাজের চাহিদা আরো বৃদ্বি পাবে। দিন দিন উন্নত বিশ্বে এই সমস্ত কাজের চাহিদা বেড়েই চলছে। তাই তারা ডাটা এন্ট্রির জন্যে মানুষদের মোটা অংকের টাকা দিয়ে খুঁজে থাকেন। 

ডাটা এন্ট্রি জব অনলাইন

ডাটা এন্ট্রি ফ্রিল্যান্সিং

ডাটা এন্ট্রি জব আপনি ঘরে বসেই অনলাইনে ও করতে পারবেন।

এই কাজটি লোকালি করার চেয়েও ন্যাশনালী খুব চাহিদা রয়েছে। অনলাইনে অনেক সেক্টর আছে সেখানে অনেক ভাবে আপনি এই ডাটা এন্ট্রির জব করতে পারবেন। 

যেমন কিছু কিছু মাধ্যেম আছে অনলাইনে ,আপনাকে মার্কেট প্লেসে একাউন্ট করে নিজেকে ক্লাইন্টের কাজের জন্যে বিড করতে হবে।

সেখান থেকে ক্লাইন্ট যদি আপনার বিড করার এপ্লিকেশন পড়ে খুশি হয় বা আপনার অভিজ্ঞতা তাদের ভাল লাগে।

 তাহলে আপনি কন্ট্রাক বেসিস ডাটা এন্ট্রির কাজটি আপনি করতে পারবেন যদি তিনি আপনাকে কাজটি দেয়।

এই সমস্ত কাজের মধ্যে আপনি আবার ভালো একটি ইনকাম করতে পারবেন। কারণ এই কাজগুলির মূল্য ভাল থাকে। 

আবার অন্য রকম ও কাজ থাকে ,যেমন কিছু কিছু সেক্টর আছে যেখানে ডাটা এন্ট্রির কাজগুলি দেওয়া থাকে আপনি শুধুকাজগুলি নিয়ে আপনার মনের মতো করে করতে পারবেন। 

সেখানে সময় দেওয়া থাকে বা কিছু রিকুজিশন থাকে।

সেইগুলি পূরণ করলে আপনি একটা ইনকাম জেনারেট করতে পারবেন। তবে এই কাজগুলির মূল্য তেমন বেশি থাকে না। 

তবে সারা দিনে আপনি ৬ থেকে ৭ ঘন্টা কাজ করলে নূন্যতম আপনি ৮ থেকে ১০ ডলার পর্যন্ত আয় করতে পারবেন অনায়াসে। 

আরো অনেক রকম কাজ থাকে ডাটা এন্ট্রির কাজ গুলি। সেগুলি আপনাকে অনলাইনে ঘটাঘাটি করে খুঁজে নিতে হবে। তবে লেগে থাকলে আশা করি বিফলে যাবেন না। 

ফ্রিল্যান্সিং কি মোবাইলে করা যায়

বহুল প্রতীক্ষিত এই প্রশ্ন লালন করে মানুষ নিজের মনের মধ্যে। ডাটা এন্ট্রি কি মোবাইল দিয়ে করা যায় বা ফ্রিল্যান্সিং মোবাইল দিয়ে করা যায় কিনা।

এটি সবার মনে মনে এখন। কারণ মোবাইল সবার হাতে হাতে। তাই এই প্রশ্ন। 

হ্যা অবশ্যই করা যায় এই ডাটা এন্ট্রির কাজগুলি মোবাইল দিয়ে। অনলাইন জগতে একটি কথা মনে রাখবেন যে , করা যায় না বা পারে না এমন কোনো কাজ নেই। 

যেমন মাইক্রো ওয়ার্কার এর কাজগুলি আপনি খুব সহজে মোবাইল দিয়ে করতে পারবেন।

আবার অনেক কাজ আছে যেগুলি আপনি মোবাইল দিয়ে অনায়াসে করতে পারবেন। যাতে কোনো ধরা বাঁধা নেই। 

তবে মোবাইল দিয়ে কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং করে সেই সম্পর্কে আপনাকে কোর্স করতে হবে। 

সেটা হতে পারে পেইড বা ফ্রি মেথড। যে কোনো একটি দিয়ে। হ্যা হয়ত কম্পিউটার দিয়ে যে কাজ খুব সহজ সেই কাজ মোবাইল দিয়ে একটু কঠিন হতে পারে যারা এক্সপার্ট না তাদের জন্যে।

 কিন্তু অনেকেই এই মোবাইল দিয়ে ফ্রিল্যান্সিং ডাটা এন্ট্রির কাজ করে প্রচুর টাকা ইনকাম করছে বর্তমানে।  তাই আপনি ও পারবেন। সাহসিকতার সাথে এগিয়ে যান। 

এই বিদ্যা শিখতে কত দিন লাগে

ডাটা এন্ট্রি শিখতে কতদিন লাগে, এটিও একটি প্রশ্ন প্রত্যেকটা মানুষের মনে। তবে একটি কথা বলে রাখা ভাল যে, যার ইচ্ছা শক্তি খুব প্রবল এবং যে বেশি করে সময় দিতে প্রস্তুত তার জন্যে ৩ থেকে ৬ মাসের মধ্যে এই ডাটা এন্ট্রি কাজটি শিখতে পারবেন। 

আবার আরেকটি কথা আপনি কতদিন লাগে সেটা না দেখে কিভাবে ভাল করে কাজটি আয়ত্ব করতে পারেন সেই দিয়ে নজর দেওয়াটাকে আমি খুব গরুত্বপূর্ণ বলে মনে করি। 

আপনি কোনো রকম তিন মাসে শিখে কাজে গেলেন কিন্তু দেখা গেলো আপনি ক্লাইন্টের কাজটি ভালো করে সম্পন্ন করতে পারছেন না। তাহলে দেখা যাবে আপনার সময়ের চেয়ে কাজটিকে গুরুত্ব দেওয়াটা জরুরি। 

আমি বলি কি কাজকে বেশি গুরুত্ব দিয়ে স্কিল ডেভেলপ করুন। সময় কে নই। কাজকে আপনি যতবেশি গুরুত্ব দিয়ে শিখবেন ততবেশি আপনার জন্য উপকার হবে এবং ভবিষ্যতে ক্লাইন্টের কাজ হারানোর সম্ভবনা খুব কম থাকবে। 

একটা কথা বলে রাখা ভাল যে ,আপনি কোনো কাজ না শিখে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার জন্যে বা মার্কেট প্লেসে একাউন্ট করতে যাবেন না। কাজ না জেনে কাজ করতে গেলে আপনি কাজ তো পাবেন না। তাছাড়া সব সময় হতাশায় ভোগবেন। 

শেষ কথা 

ডাটা এন্ট্রির কাজটি আপনি অনায়াসে করতে পারবেন শুধু যুগের সাথে তাল মিলিয়ে কাজটি মানিয়ে নিতে হবে।

এই কাজটি আপনি নিজের দেশে ও করে অন্তত পক্ষে ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন।

আপনি যেখান থেকে এই ডাটা এন্ট্রি শিখতে চান না কেন যেমন চাকুরীজিবী ,স্টুডেন্ট কিংবা গৃহিনী হোন না কেন সব জায়গা থেকে আপনি একটি করে অবসরে ইনকাম করতে পারবেন।

এবং এটি খুব প্রাথমিক কাজ হিসেবে সর্বজন নন্দিত। 

প্রায় জিজ্ঞাসিত প্রশ্নাবলী

ডাটা এন্ট্রি ফ্রিল্যান্সিং করে কি সাবলম্ভী হওয়া যায় ? 

হ্যা অবশ্যই সাবলম্বী হওয়া যায়। কিন্তু কাজটিকে আপনার খুব ভালোবেসে এবং সময় দিয়ে ভাল করে আয়ত্ব করতে হবে।

ডাটা এন্ট্রি ফ্রিল্যান্সিং কাজ কি গ্রূপ করে করা যায় ? 

আপনি চাইলে যদি একটি এজেন্সি খুলেন তাহলে সেক্ষেত্রে আপনি গ্রূপ আকারে কাজ নিয়ে ডাটা এন্ট্রি কাজ গুলি করতে পারেন।
এতে অন্যজনের কর্মসংস্তান ও হবে। ভাল একটি অর্থ উপার্জন হবে। 

এই ডাটা এন্ট্রির কাজ গুলি কি যে কোনো সময় করা যায় বা নির্দিষ্ট কোনো সময় আছে?

না এই ডাটা এন্ট্রির কাজ গুলি করার জন্য কোনো নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দেওয়া নেই।
আপনি যেকোন সময় এই কাজটি করতে পারবেন।
কিন্তু আপনি যদি ক্লাইন্ট থেকে নির্দিষ্ট সময় নির্ধারণ করে নেন তাহলে সেক্ষেত্রে অন্য কথা। 
আবার কিছু কিছু জব আছে এই ডাটা এন্ট্রি ফ্রিল্যান্সিংয়ে সেগুলি রিমোর্ট জব হিসেবে সময় বেঁধে দিয়ে আপনাকে তারা করিয়ে নেবে। 

ডাটা এন্ট্রি কাজ গুলি কি সরকারী ভাবে শিখিয়ে থাকে ?

হ্যা অবশ্যই সরকারি ভাবে এই আত্মনির্ভরশীলতার কাজ শিখিয়ে থাকে। 
সেটা আপনাকে অনলাইনে কখন বা কোনো সময় এই কাজ গুলির জন্যে সরকারী দফতর থেকে সার্কুলার দেয় সেইদিকে একটু নজর রাখতে হবে।
তবে এই ক্ষেত্রে সম্ভবত এস এস সি কিংবা এইস এস সি পর্যন্ত শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদের প্রয়োজন হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *