ডিজিটাল মার্কেটিং কেন শিখবো এবং ডিজিটাল মার্কেটিং এর ভবিষ্যৎ কি ? 

ডিজিটাল মার্কেটিং কেন শিখবো

ডিজিটাল মার্কেটিং কেন শিখবো এই প্রশ্ন প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে নিশ্চয় আপনি অনলাইন সার্জ করেছেন। খুব জানার আগ্রহ নিয়ে এসেছেন। তাই আমি মনে করি আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। 

অনলাইনে অনেকদিন ধরে ঘুরেছেন কিংবা বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়াতে অনেক রকম অনলাইনে আয়ের কথা শুনেছেন। 

বা ভিডিও দেখে আপনার মনে আশা জেগেছে কিভাবে আপনি অনলাইন থাকে ইনকাম করতে পারবেন। 

সেক্ষেত্রে আপনি কিভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং শিখবেন এবং কিভাবে শিখে আয় করা যায়।

কত টাকা যায় করা যায় সে সম্পর্কে আজকে বিশেষ ভাবে আলোচনা করবো সাথে থাকবেন। 

ডিজিটাল মার্কেটিং কেন করবেন? 

অনলাইনে অনেকভাবে নিজেকে তুলে ধরার মাধ্যম রয়েছে । যেমন গ্রাফিক্স ডিজাইন , ওয়েব ডিজাইন , ওয়েব ডেভেলপমেন্ট অথাব ইউটিউবিং বা এন্ড্রয়েড আপস ডেভেলপমেন্ট । কিন্তু তা সত্ত্বেও কেন ডিজিটাল মার্কেটিং শিখবেন? 

অনলাইন জগত হচ্ছে বর্তমান মার্কেটিং এর জন্যে সর্বোচ্চ প্লাটফর্ম। সারা বিশ্বের ব্যবসায়ীরা এখন সমস্ত ব্যবসাকে ডিজিটালাইজেশন করেছেন।

কারণ মানুষের সমস্ত চাওয়া পাওয়া এখন অনলাইনে। 

তাই মানুষের চাহিদা পূরণ করার নিমিত্তে বড় বড় ব্যবসায়ীরা ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে তাদের পণ্যকে অনলাইনে প্রচার করে থাকে।

সেটা হতে পারেন ডিজিটাল প্রোডাক্ট কংবা ফিজিকেল প্রোডাক্ট। 

আপনি এমন একজন মানুষ পাবেন না, যারা অনলাইনে কিছু না কিছু সার্চ না করে থাকে নাই । তাই মানুষের চাহিদা এবং ব্যবসায়ীদের চাহিদা বা নিজের চাহিদা পূরণ করার নিমিত্তে অনলাইন থেকে আয় করার জন্যে ডিজিটাল মার্কেটিং শিখবেন। 

শুধু অর্থ উপার্জন কেন এখন মানুষেরা নিজের প্রয়োজনে ডিজিটাল মার্কেটিং করে থাকে।

আপনার নিজের যেকোন স্কিলকে মানুষের মাঝে প্রচার করার জন্যে হলেও আপনাকে ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে হবে ।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলছে। এই চাহিদা ভবিষ্যতে আরো বাড়বে বই কমবে না । 

দিন দিন যে হারে মানুষ অনলাইন মুখী হচ্ছে সে হরে আমাদের দেশেও ডিজিটাল মার্কেটের কম। তবে ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের ধরন অনেক রকম হয়। আমরা সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো। 

ডিজিটাল মার্কেটিং কি ?

ডিজিটাল মার্কেটিং হচ্ছে প্রচার করার একটি পন্থা।

সেটি যেকোন কিছু হতে পারে। হতে পারে সেটি কোনো কন্টেন্ট বা কোনো ফিজিক্যাল প্রোডাক্ট হতে পারে বা কোনো ডিজিটাল প্রোডাক্ট অথবা ভিডিও বার্তা। 

এককথায় বর্ণনা করতে হলে ডিজিটাল মার্কেটিং হচ্ছে ডিজিটাল যোগাযোগের মাধ্যম ব্যবহার করে কঞ্জিউমারের কাছে আপনার কাঙ্কিত পন্য সম্পৰ্কে জানান দেওয়া।

সেটা যেকোন মিডিয়ার মাধ্যেম। যেমন ইন্টারনেট ,সোশ্যাল মিডিয়া বা মোবাইল ফোন। 

বর্তমান সময়ে মানুষ অনলাইনে বেশি সময় ব্যয় করে থাকেন।

সেই অনলাইনকে ব্যবহার করে আপনি গ্রাহকের কাছে আপনার পণ্যকে যেকোন পদ্বতিতে পৌছিয়ে দেওয়া বা জানিয়ে দেওয়ার নাম হচ্ছে ডিজিটাল মার্কেটিং। 

ডিজিটাল মার্কেটিং কোথায় শিখবেন?

শিক্ষা লাভের অনেক পদ্বতি রয়েছে আপনি চাইলে অনেক ভাবে শিখতে পারেন ।

যেমন অনলাইনে অনেক রকম ফ্রি মেথডে শিক্ষা লাভ করতে পারেন।  অথবা ইউটিউবের মাধ্যমে ও শিখতে পারেন। 

অনলাইনে ফ্রি মেথডে ও অনেক রকম টিউটোরিয়াল রয়েছে। আপনাকে একটু দয়া করে গুগল সার্চ করে দেখতে হবে। কোন টিউটোরিয়াল গুলি খুব ভালো করে শিখিয়েছেন। 

আবার সবার শেখানো একরকম না। একেক জনের শিক্ষা একেক রকম।

আপনার যেভাবে শিখতে ভালো লাগে সেভাবে আপনি ফ্রি ফেথডে শিখতে পারেন। বা শুরু করতে পারেন।  

এবার আসি পেইড মেথডে। আগেই বলে রাখি, আপনি ফ্রি মেথডে যা কিছু পাবেন না। তার বেশি কিছু পেইড মেথডে পাবেন। তাই পেইড মেথডে আশা করি একটা ভালো ফল পাবেন। 

যেমন আমাদের দেশে অনেক রকম ফ্রিল্যান্সিং ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে। তারা অনলাইন কিংবা অফলাইনে শিখিয়ে থাকেন।

এবং শিক্ষা শেষে তারা আপনাকে একটি সার্টিফিকেট ও প্রদান করবেন।

তাদের কাজ থেকে আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে ভালো ট্রেইনারের মাধ্যমে শিখতে পারবেন। 

আবার আপনি ইউটিউবেও পেইড মেথডে অনলাইনে অনেক কোর্স চালু করে থাকে।

আপনি যদি অফলাইনে শিখতে না চান। তাহলে আপনি অনলাইনে সেই কোর্স গুলি এনরোল করে শিখতে পারবেন। 

অনলাইনে ইন্টারনেশনালি ভাবে ও শিখতে পারবেন। আবার লোকালি ও শিখতে পারবেন।

অনলাইনে আপনি ফ্রি ইন্টারনেশনালি নিচের  লিংক থেকে গিয়ে ও শিখতে পারবেন আবার তারা পেইড মেথডে ও শিখিয়ে থাকেন।

ইউডেমি অনলাইন কোর্স 

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ আপনার শিক্ষার প্রচন্ড ইচ্ছা থাকলে আপনি যে কোনো মেথড কে কাজে লাগিয়ে শিখে নিতে পারেন।  

ডিজিটাল মার্কেটিং কেন শিখবো এর কাজের পরিধি কেমন এবং কত টাকা আয় করতে পারবেন?

ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের কাজের পরিধির শেষ নেই।  নিত্য নতুনভাবে এই ডিজিটাল মার্কেটিং করে থাকে অনলাইনে ডিজিটাল মার্কেটাররা।

দিন দিন আরো বিস্তার লাভ করছে এই ডিজিটাল মার্কেটিং। 

দিন কে দিন মানুষ না না উপায় খুঁজে বের করে কিভাবে এই ডিজিটাল মার্কেটিং কে প্রসার করা যায়। অনেক কিছু আপনার নিজস্ব সতন্ত্র জ্ঞানের উপরও নির্ভর করে। 

কিভাবে এই ডিজিটাল মার্কেটিং এ কাজে লাগিয়ে মানুষের কাছে প্রচার করা যায়। তবে আমি বলবো আপনি আজ থেকে ই কাজে লেগে পড়ুন।

কারণ আমরা যা কিছু দেখি যেমন সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং যেমন ফেইসবুক,টুইটার, লিংকডিন,প্রিটারেস্ট এবং ইনস্টাগ্রাম এই সব কিছু হলো ডিজিটাল মার্কেটিং করার জন্যে একেকটি পন্থা। 

এইগুলি কক্ষনো বন্ধ হবে বলে আমি মনে করি না।

আরো যত দিন যায় মানুষ এই সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে নতুন করে সম্পর্ক তৈরী করছে।

আপনি কি মনে করেন যে এই সোশ্যাল মিডিয়াগুলি যত দিন থাকবে আপনার ডিজিটাল মার্কেটিং এর পরিধি কমে যাবে ? কখনো নই। আরো বাড়বে। তাই ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের সম্পর্কে সন্দেহ প্রকাশ না করে এখনই ঝাঁপিয়ে পড়ুন।   

ডিজিটাল মার্কেটিং করে কত টাকা যায় করা যায়

ডিজিটাল মার্কেটিং কেন শিখবো

আপনি জানেন কি একজন ডিজিটাল মার্কেটার কত টাকা ইনকাম করে থাকে মাসে। ২০k  থেকে শুরু করে ১১৫k  পর্যন্ত ইনকাম করে মাসে।

একজন বাংলাদেশী ব্যংকাররা ও এই টাকা ইনকাম করতে পারে না। 

আপনি যত বেশি এক্সপার্ট হবেন এই ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে।

ততবেশি আপনার যায় বৃদ্বি হতে থাকবে। আপনি চাইলে একটা এজেন্সি খুলে কয়েক লাখ থাকা ইনকাম করতে পারেন এই ডিজিটাল মার্কেটিং করে। 

কারণ অনলাইনে ডিজিটাল মার্কেটারের চাহিদা প্রচুর।

বড় বড় জয়েন্ট কোম্পানিগুলি প্রতি বছর খুব ভাল মানের ডিজিটাল মার্কেটের খুঁজে থাকেন। যাদের ডলার বেসিস বেতন দিয়ে থাকেন। 

এছাড়াও আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং শিখে অনলাইনে যে কোনো একটি মার্কেট প্লেস এ একাউন্ট করে সেখান থেকে ও লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করতে পারেন।  

ডিজিটাল মার্কেটিং এর ভবিষ্যৎ

ব্যবসা যতদিন আছে ততদিন মার্কেটিং ও আছে। এর বিপরীত আপনি চিন্তাও করতে পারবেন না। কারণ প্রচার না থাকলে ব্যবসার প্রসার ও কখনো হয় না। 

ভবিষ্যতে এই ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের চাহিদা বাড়বে বই কি কমবে না। 

অনলাইনে অনেক কোম্পনি গুলি তাদের ব্যবসার প্রচারের জন্যে ডিজিটাল মার্কেটারদের খুঁজে করে থাকেন। ভবিষ্যতে এর চাহিদা ও কেনো অংশে কমবে না।  

আপনি জানেন কি বিশ্বের সবচাইতে বড় মোবাইল ব্র্যান্ড নোকিয়া কোম্পানি তাদের ব্যবসার ধস নেমেছিল একমাত্র যুগের সাথে তাল মিলিয়ে নিজের ব্যবসাকে ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে প্রচার না করার কারণে। 

এই রকম আরো অনেক নাম না জানা ব্র্যান্ড রয়েছে তারা তাদের ব্যবসা বেশিরভাগ হারিয়েছেন যতযতভাবে প্রচার না করার কারণে।

কিন্তু যারা এই ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের আশীর্বাদের প্রচারের ক্ষেত্রে এগিয়ে গেছেন তারা কিন্তু আজকে অনলাইন মার্কেটিং সফল। 

তাই ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের ভবিষ্যৎ দিন দিন আরো প্রসার ঘটবে।

নতুন বিপ্লবের সূচনা হবে। ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে নিজেকে গড়ে তুলুল এই ডিজিটাল মার্কেটিং সেক্টরে। 

আরো পড়ুন ঃ

মোবাইল দিয়ে কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং করা যায় । 2023 সালে আদৌ কি সম্ভব ? Completely Guide

এফিলিয়েট মার্কেটিং কেন করবো এবং কেন এই সেক্টর খুব জনপ্রিয়

ই পাসপোর্ট করার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র কি কি ? এবং শিশুদের জন্যে কি ক প্রয়োজন ?

ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে নিজস্ব অভিমত 

ডিজিটাল মার্কেটিং কেন শিখবো সেই কথা বলার আগে বলি, আমি নিজেও একজন ডিজিটাল মার্কেটার।

আমি আমার নিজস্ব ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কন্টেন্ট মার্কেটিং করে থাকি। যেখানে যেকোন সেক্টরে যান না কেন।

এই ডিজিটাল মার্কেটিং আপনার প্রয়োজন হবেই।

 আপনার বাইরের সেক্টর বাদ দিয়ে নিজের প্রচারের জন্যে হলেও ডিজিটাল মার্কেটিং শিক্ষা জরুরি। মার্কেটিং মানে হলো প্রচার। আর প্রচারই হলো প্রসার। 

আপনি নিজেকে যদি একজন দক্ষ ডিজিটাল মার্কেটার হিসেবে দাঁড় করাতে পারেন তাহলে আপনার আর পিছন ফায়ার তাকাতে হবে না। এই ডিজিটাল মার্কেটিং এর হাত ধরে আপনার ভবিষ্যৎ দাঁড় হয়ে যাবে। 

তাছাড়া অন্নান্য অনলাইন কাজের চেয়ে এই ডিজিটাল মার্কেটিং অনেক সহজ আপনি চার,পাঁচ অথবা ছয় মাসের ভিতরে ও এই ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে পারেন।

 এখন যেখানে নিত্যদিন চাকরির জন্যে হাহাকার শুরু হয়েছে সেখানে আমি মনে করি এই ডিজিটাল মার্কেটিং করে আপনি অনায়াসে প্রাথমিকভাবে ২০ হাজার টাকা ইনকাম করা কোনো ব্যাপার না।  

ডিজিটাল মার্কেটিং কেন শিখবো এই সম্পর্কে শেষ কথা 

শুরু করুন দেখবেন কখন বলতে বলতে করতে করতে শিখে গেছেন এই ডিজিটাল মার্কেটিং। 

কেননা আপনি যা শিখবেন তার অনেক অংশ আপনি আগেই দেখেছেন করেছেন।

ডিজিটাল মার্কেটিং টা এই রকম । পর নির্ভরশীল না হয়ে নিজে স্বাবলম্বি হোন এই ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের হাত ধরে।  

অনবরত জিজ্ঞাসা (FAQ)

ডিজিটাল মার্কেটিং করে কেউ কি স্বাবলম্বী হয়েছে?

হ্যা অবশ্যই সাবলম্বী হওয়া  যায় , অনলাইন জগতে বাংলাদেশেও অনেক ডিজিটাল মার্কেটাররা আছে।
যারা প্রতিমাসে গড়ে ১ থেকে দেড় লাখ পর্যন্ত ইনকাম করে থাকেন।
এবং এর পাশে তারা এজেন্সি খুলে আরো ইনকাম করছে। অন্যজনদেরকেও কাজ শিখাচ্ছে। 

ডিজিটাল মার্কেটার হতে কতদিন লাগে?

কতদিন সময় লাগে সেটি হচ্ছে আপনার উপর। আপনি কত সময় দিচ্ছেন। বা কাজটিকে আপনি কতোটুকট ভালোবেসে শিখছেন।
হ্যা তবে যাতাযত ভাবে শিখলে ৬ মাসে খুব ভালভাবে এই ডিজিটাল মার্কেটিং  শিখা  যায়। 

ডিজিটাল মার্কেটাররা কি কি বেসিসে টাকা ইনকাম করে থাকে। 

ডিজিটাল মার্কেটাররা ঘন্টা বেসিস বা কন্ট্রাক বেসিস বা পার্মানেন্ট হিসেবেও কাজ করে থাকে।
যার যেমন সুবিধা সেই সে হিসেবে টাকা ইনকাম করে এই ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *